বর্ষা বন্দনা

আমি তোমাকে আহ্বান করেছিলাম,
আকুল আবেদন করেছিলাম তোমার স্পর্শ পাবার জন্য ,
শূণ্যে দু’হাত তুলে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করেছিলাম. . . আমি।
অবশষে তুমি এলে,
আমি তোমার মাঝে নিজেকে হারিয়ে ফেললাম !
তুমি শন-শন শব্দে আমার শরীরে শিহরণ জাগালে,
তুমি আমার মাথা স্পর্শ করলে,
তুমি আমার ঘাঢ় ছুঁয়ে দিলে নরম তুল-তুলে হাতে,
আমিও আলতো করে তোমায় স্পর্শ করে দিলাম. . . ।
নিঃশব্দে, নীরবে, সংগোপনে,
তোমার স্পর্শ নুয়ে পড়লো ঘাঢ় থেকে আমার সমস্ত শরীরে,
আমি তোমাতে সিক্ত হলাম,
আমি তোমাতে মত্ত হলাম।

কিছু অনুভূতি স্পশর্কে অনুভব করে
আর কিছু স্পর্শ অনুভবকে স্পর্শ করে ।’
তুমি আমাকে স্পর্শ করলে আর আমি তোমাকে অনুভব করলাম ।।
শাশ্বত হে বর্ষা,
তুমি বার বার আমায় ছুঁয়ে যাও
তোমার স্পর্শে আমি বাচঁবো. . .
পুনঃ পুনঃ স্পর্শের তৃষ্ণা নিয়ে. . . . ।

উৎসর্গঃ প্রিয় বন্ধু সুজিতকে . . . যাদের কে প্রেম করি ও তাদের ভেতর একজন।।
১২ ই আগস্ট, শনিবার, ২০০৬।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *